April 16, 2024
Breaking News

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা ফিরতেই নিজের কেন্দ্রে ‘স্বাস্থ্যসাথী কার্ড’ বণ্টন করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

📝বিশ্বজিৎ দাস- Todays Story:গত বুধবার যেখানে ঘুরে গেলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা,মুখ্যমন্ত্রীর বিধানসভা কেন্দ্র ভবানীপুর ‘আর নয় অন্যায়’ কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে উৎখাতের ডাক দিয়েছেন নাড্ডা।সরব হয়েছেন রাজ্যের ‘জরুরি অবস্থা’ নিয়ে।বৃহস্পতিবার ভবানীপুরেই ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড বণ্টন করবেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী।

গত বুধবার ভবানীপুরে ‘আর নয় অন্যায়’ কর্মসূচির লিফলেট বিলি করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। তার আগেই অবশ্য দলীয় কর্মীদের নির্দেশ দেন, ভবানীপুরের বাড়িবাড়ি গিয়ে প্রচার করতে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে যেন নিজের কেন্দ্রে জেতার জন্য বেশি নজর দিতে হয়, সেই মন্ত্র কর্মীদের দিয়ে গিয়েছেন নাড্ডা। কর্মীদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘তৃণমূলকে উপড়ে ফেলতেই হবে।’ উল্লেখ্য, মুখ্যমন্ত্রীর কেন্দ্র হলেও গত লোকসভা ভোটে ভবানীপুরে তৃণমূলের ফল মোটেই আশাব্যঞ্জক ছিল না। এই কেন্দ্রে বিজেপির থেকে মাত্র ৩ হাজার ১৬৮ ভোটে এগিয়ে ছিল তৃণমূল।

মমতার কেন্দ্র হিসেবে তৃণমূলের এই ফল রীতিমতো আশঙ্কারই। আর সেই তিন হাজারের ব্যবধান মুছে দিতে পুরোদমে ঝাপাচ্ছে গেরুয়া শিবির। তাই পালটা অন্য কাউকে দিয়ে নয়, স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীই পথে নামছেন এবার। যদিও নাড্ডাকে দিয়ে মমতার গড়ে বিজেপির প্রচার করানোর বিষয়ে অবশ্য পালটা কটাক্ষ করে তৃণমূল নেতা সৌগত রায় আগেই বলেছিলেন, ‘এক সময় নীতীশ কুমার বলেছিলেন বিহারে বাহারিদের মেনে নেওয়া হবে না। এখন বাংলাতেও বাহারিদের আনাগোনা শুরু হয়েছে। জেপি নাড্ডা বাংলাও বলতে পারেন না। মমতার সঙ্গে ওই এলাকার সম্পর্ক অনেক গভীরে। বাহারিরা সেখানে গিয়ে কী করবেন! এটা বাংলার সংস্কৃতির বিরুদ্ধে।’

error: Content is protected !!