April 20, 2024
Breaking News

বিয়ের ৪ মাসের মাথায় গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুন করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে।

📝শিব সংকর চ্যাটার্জী, দক্ষিণ দিনাজপুর- Todays Story:-ঘটনায় চাঞ্চল্য গঙ্গারামপুর থানার হামজাপুর এলাকায়। ঘটনার পরে অভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে গঙ্গারামপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে মৃতা গৃহবধূর পরিবারের লোকজন।পুলিশ অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। সেইসঙ্গে বৃহস্পতিবার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বালুরঘাট সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ ।পুলিশি সূত্রে খবর মৃতা গৃহবধূর নাম শাবনুর বেগম (২২)।বাড়ি গঙ্গারামপুর ব্লকের বাসুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের হামজাপুর এলাকায়।এবং অভিযুক্ত স্বামী লিংকন চৌধুরী। বাড়ি গঙ্গারামপুর ব্লকের জাহাঙ্গীরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের চৌধুরী পাড়া এলাকায়। জানা গেছে গত চার মাস আগে প্রেম করে বিয়ে হয়েছিল দুজনের। পরিবার সূত্রে খবর বিয়ের সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি অভিযুক্ত লিংকনের পরিবারের লোকজন। যার ফলে বিয়ের পর থেকে কখনো শ্বশুরবাড়ি আর কখনো নিজের কাকার বাড়িতে থাকত ওই দম্পতি ।এরই মাঝে গত দুদিন আগে বাপের বাড়িতে ঘুরতে আসে শাবনূর ও লিংকন। বুধবার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সামান্য বচসা বাধে বলে খবর।  এরপরেই গভীর রাতে পাশের ঘরে গিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হয় ওই গৃহবধূ।যদিও পরিবারের লোকজনদের দাবি শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে তাদের মেয়েকে। এরপরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে ফাঁসিতে। ঘটনার পরে খবর দেওয়া হয় গঙ্গারামপুর থানায়।পুলিশ পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে আসে গঙ্গারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ।সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করে গৃহবধূকে। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য এলাকায়।এমন ঘটনার পরে অভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে গঙ্গারামপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে মৃতার পরিবারের লোকজন। পুলিশ অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করেছে ।পাশাপাশি ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ে তদন্তের পরে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বালুরঘাট সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে ঘটনা তদন্ত শুরু করেছে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ ।এ বিষয়ে মৃতা গৃহবধূর এক আত্মীয় জানিয়েছেন।

error: Content is protected !!