April 20, 2024
Breaking News

মানুষের কাজ করতে কোনও পদ লাগে না! মন্তব্য শুভেন্দুর

📝নিজস্ব সংবাদদাতা,কোলাঘাট – Todays Story:তৃণমূল কংগ্রেসে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে মাঝেমধ্যেই জল্পনা ছড়ায়। এর আগে অনেকবার দলবদলের ইস্যুতে শুভেন্দুকে নিয়ে চর্চা হয়েছিল বাংলার রাজনৈতিক মহলে। একাধিক ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্যে রাজ্য-রাজনীতির উত্তেজনার পারদ দিন দিন বাড়ছে। গতকাল কোলাঘাটে বিজয়ের শুভেচ্ছা জানাতে এসে তিনি মন্তব্য করেন, মানুষের কাজ করতে কোন পদ লাগে না! শুভেন্দুর এই মন্তব্যে বিতর্কের জন্ম নেয়। যদিও ফের একবার তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করে বঙ্গ রাজনীতির উত্তেজনা বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। এবার তাঁর কথায়, আমি আমি করাই হল সর্বনাশের মূল!

নিউ দীঘায় মহিলা কল্যাণ প্রতিষ্ঠানের ভগিনী নিবেদিতার ১৫০ তম জন্মদিন উদযাপনের অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। সেই অনুষ্ঠানে প্রায় কুড়ি মিনিট বক্তৃতা করেন শুভেন্দু এবং বলেন, ‘‘আমি কোভিড আক্রান্ত হয়েছিলাম। কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের গেস্ট হাউসে আইসোলেশনে থেকে সুস্থ হয়েছি। কোলাঘাট আমায় নতুন জীবন দিয়েছে।’’ আরও বলেন, ‘‘লকডাউন চলাকালীন কোলাঘাট ব্লকের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি। দুর্ঘটনায় মৃত অ্যাম্বুল্যান্স চালকের পরিবার ও মৃত একজন রোগীর পরিবারকে সাহায্য করেছি।’’ এর পরেই তাঁর মন্তব্য,‘‘আমি এসব করে বলি না”।

এদিন আরো একটি ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করেন তিনি। বলেন একার দ্বারা কারোর পক্ষে কোন কাজ করা সম্ভব নয়। সকলকে একসঙ্গে মিলে কাজ করতে হয়। এখানে প্রত্যেকের প্রশংসা করা দরকার, কারণ একক শক্তিতে কেউ কাজ করতে পারে না। তারপরেই স্বামী বিবেকানন্দকে উদ্ধৃত করে শুভেন্দু বলেন, ‘আমি আমি হল সর্বনাশের মূল, যারা আমরা আমরা করে, তারাই টিকে থাকে!’ আপাতদৃষ্টিতে এই বক্তব্যের কোন অর্থ না থাকলেও, রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এই মন্তব্য করে আসলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরোক্ষ বার্তা দিতে চাইছেন শুভেন্দু। কারণ সকলেই জানেন, রাজ্য সরকার তথা তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যকারিতা মূলত একজনের ওপর নির্ভরশীল। তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কারণে শুভেন্দু অধিকারীর এই বক্তব্য তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

error: Content is protected !!