April 15, 2024
Breaking News

সম্প্রীতির নজির সৃষ্টি করলেন বিধায়ক

📝নিজস্ব সংবাদদাতা-Todays Story:রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা মন্ত্রী তথা তৃণমূল বিধায়ক জাভেদ খান বরাবরই হিন্দু-মুসলিম মিলনে বিশ্বাসী I তিনি একজন অ-সাম্প্রদায়িক ব্যক্তি হিসাবে খ্যাত । তাই জাভেদ খানকে সম্প্রীতির অন্যতম প্রতীক বললে ভুল বলা হয় না । তিনিই এবার নিজের বিধানসভা এলাকায় ভেঙে পড়া এক শনি মন্দির নির্মাণ করে নজীর সৃষ্টি করলেন । বুধবার এই মন্দিরের উদ্বোধন হলেও বৃহস্পতিবার থেকে তা সবার জন্য খুলে দেওয়া হল ।

প্রসঙ্গত বলা প্রয়োজন,২০১৭ সালে চৌবাগা এলাকায় একটি ব্রিজ তৈরি হয়। সেই সময় শনি মন্দিরটি ভাঙা পড়েছিল। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জনপ্রতিনিধি জাভেদ খানের এলাকায় এই মন্দির ভাঙা পড়া নিয়ে ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল এলাকাবাসীর একাংশের মনে। এরপর ব্রিজটি তৈরি হওয়ার পর নিজের বিধায়ক তহবিল থেকে মন্দিরটিকে নতুন করে সুসজ্জিত করলেন মন্ত্রী জাভেদ খান। বুধবার মন্দিরের উদ্বোধন করেন দক্ষিণ কলকাতার তৃণমূল সাংসদ মালা রায়। হাতে হাত মিলিয়ে উদ্বোধন করেন জাভেদ খান নিজেও। উপস্থিত ছিলেন কো-অর্ডিনেটর শ্যামল বন্দ্যোপাধ্যায় ও বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়। বুধবার এই উপলক্ষে এলাকার প্রায় হাজার পাঁচেক মানুষের ভোগ খাওয়ার ব্যবস্থা করেন মন্ত্রী জাভেদ খান।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বারবারই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ বজায় রাখার পক্ষে বার্তা দিয়ে থাকেন। তাঁর মতে, ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। বাংলা সব ধর্মের সহবস্থান। প্রত্যেকটি উৎসবেই বাংলার সমস্ত ধর্মের মানুষরা শামিল হন। জাভেদ খান তৈরি করলেন শনি মন্দির।

এ বিষয়ে নাম না করে বিজেপিকে কটাক্ষ করে জাভেদ খান বলেন, ”ধর্ম আর রাজনৈতিক মঞ্চ দুটো আলাদা। কোনও রাজনৈতিক দল বাংলায় ধর্ম নিয়ে বিভাজনের সৃষ্টির চেষ্টা করছে। আমরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংঘবদ্ধ সৈনিক। নন্দীগ্রাম থেকে সিঙ্গুর, CAA থেকে NRC – সব কিছুতেই বাংলা সংস্কৃতিকে ধরে রাখব। বাংলার মাটি রবীন্দ্রনাথ, নজরুলের মাটি।” তিনি আরও বলেন যে সেবার মন্দির ভাঙা নিয়ে যে ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল সাধারণের মনে, শনি মন্দিরটি ফের তৈরি করে তিনি বোঝাতে চাইলেন, ব্রিজ তৈরির জন্য মন্দির ভাঙা তাঁর সিদ্ধান্ত ছিল না, সরকারি কাজের জন্যই তা ভাঙতে হয়েছিল।

error: Content is protected !!